ময়নায় চোরাই ১২০ মন পাট ভাগাভাগি নিয়ে দ্বন্দ্ব

শেয়ার করুন


দীপঙ্কর পোদ্দার অপু।।

ফরিদপুরের বোয়ালমারীতে একশ বিশ মন চোরাই পাট নসিমনে করে চোরের বাড়ি নেয়ার সময় জব্দ করা হয়েছে। বুধবার রাত ৮ টার দিকে উপজেলার ময়না ইউনিয়নের রানীদৌলা গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। জব্দকৃত পাট ইউনিয়ন পরিষদের একটি কক্ষে রাখা হয়েছে। ময়না ইউনিয়নের গ্রাম পুলিশ মো. নুরুল ইসলাম জানান, ময়না ইউনিয়নের হাটখোলারচর গ্রামের মোহাম্মদ শেখের ছেলে আকরাম শেখ, মাজেদ শেখের ছেলে জাকির শেখ, আবু তারা শেখের ছেলে ঠাণ্ডু শেখ এবং রানীদৌলা গ্রামের শাহিন শেখ দীর্ঘদিন ধরে চোরাই পাট ও গরু চুরির ব্যবসা করে আসছে। বুধবার রাত ৮ টার দিকে শাহিন শেখের বাড়ির সামনের মেহগনির বাগান থেকে তিন নসিমনের ১শ ২০ মন চোরাই পাটের ভাগাভাগি নিয়ে চারজনের মধ্যে বচসা হয়। এক পর্যায়ে গ্রাম্য পুলিশ এবং পার্শ্ববর্তী লোকজনের উপস্থিতি টের পেয়ে চারজনেই সটকে পড়ে। পাটের ধরন দেখে যশোর অঞ্চলের পাট বলে মনে হচ্ছে। 
সরেজমিনে গেলে এলাকাবাসী জানান, ওই চারজন বিভিন্ন চুরির ঘটনার সাথেও জড়িত। তারা আন্তঃজেলা চোরা কারবারি চক্রের সদস্য। ইতিপূর্বে আকরাম শেখের বাড়ি থেকে চোরাই গরু উদ্ধার করা হয়েছিল। অভিযুক্তদের বাড়ি গিয়ে তাদের পাওয়া যায়নি এবং এ ব্যাপারে শাহিন শেখ, ঠাণ্ডু শেখকে মোবাইলে ফোন দিলে ফোন রিসিভ করেননি। ঘটনার পর থেকে চারজনই পলাতক।   ময়না ইউনিয়নের চেয়ারম্যান নাসির মো. সেলিম বলেন, ঘটনা শুনে থানায় জানানো হয়েছে। থানা পুলিশের পরামর্শে জব্দকৃত পাট ইউনিয়ন পরিষদের একটি কক্ষে রাখা হয়েছে। এ ব্যাপারে ঘটনাস্থল পরিদর্শনকারী বোয়ালমারী থানার উপ-পুলিশ পরিদর্শক মামুন ইসলাম বলেন, চৌকিদারের মাধ্যমে খবর পেয়ে পাট জব্দ করা হয়েছে। তদন্তের মাধ্যমে জানা যাবে পাটের প্রকৃত মালিক কে এবং কোথা থেকে কার কাছে এসেছে। 


শেয়ার করুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *